Food Ingredients

আল্লাহ তায়ালা একমাত্র রিযিক দাতা

শরীরচর্চার গুরুত্ব, উপকারিতা এবং এর অধিকতম সুবিধাসমূহ

স্লিম হতে ব্যায়ামের প্রয়োজন হয় কিন্তু ওজন বাড়ানোর জন্যও কি ব্যায়ামের প্রয়োজন? হ্যাঁ, অবশ্যই প্রয়োজন। করণ ওজন ঠিকঠাক রাখা ও বাড়াতে শরীর চর্চার গুরুত্ব অপরিসীম। তাই যার যার সুবিধামতো, নিয়মিত শারীরিক কন্ডিশন অনুযায়ী ব্যায়াম, হাঁটা, সুইমিং ,দড়িলাফ কিংবা অন্যান্য ফ্রি-হ্যান্ড এক্সারসাইজ করে নিতে পারেন। তবে যারা ওজন বাড়াতে চাচ্ছেন তাদের শরীর চর্চার গুরুত্ব সম্পর্কে জেনে নেওয়া উচিত।চলুন তাহলে, ওজন বাড়াতে শরীর চর্চার গুরুত্ব সম্পর্কে জেনে নেই।

ওজন বাড়াতে শরীর চর্চার গুরুত্ব

ওজন বাড়াতে বেশি বেশি খাওয়ার পাশাপাশি ব্যায়াম করা প্রয়োজন। অনেকেই হয়তো ভাবছেন, ওজন বাড়ানোর জন্য আবার কিসের ব্যায়াম। সুস্থ, সবল ও রোগমুক্ত শরীর পেতে এবং সঠিক নিয়ম মেনে ওজন বাড়াতে শরীরচর্চার কোন বিকল্প নেই। আপনার লক্ষ্য হচ্ছে ওজন বাড়ানোর সাথে সাথে শরীরকে ফিট রাখা। ওজন খুব কম হলে অনেক সময় নানা রকম সমস্যা হতে পারে, তাই বয়স অনুযায়ী ওজন ঠিক রাখা খুবই প্রয়োজন। রোগাক্রান্ত বা শুকনো শরীর হলে খাবারের দিকে যেমন খেয়াল রাখতে হবে তেমনি শরীরচর্চার দিকেউ লক্ষ্য রাখতে হবে। এক্সারসাইজ থেকে কি কি উপকার পাবেন চলুন তাহলে সে সম্পর্কে জেনে নেই।

শরীরচর্চার গুরুত্ব, উপকারিতা এবং এর অধিকতম সুবিধাসমূহ

পরিচিতি

শরীরচর্চা মানে হল শরীরের বিভিন্ন অংশগুলির সুস্থ রাখার পদক্ষেপ। এটি স্বাস্থ্যকে উন্নয়ন করে এবং জীবনের মান উন্নয়ন করে। শরীরচর্চা না করলে মানসিক এবং শারীরিক অবস্থার সাধারণ উন্নয়নে ব্যাপারটি অব্যস্থাপনযোগ্য।

শরীরচর্চার গুরুত্ব

সুস্থ থাকার জন্য

শরীরচর্চা করা সুস্থ থাকার জন্য গুরুত্বপূর্ণ। এটি শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্যকে উন্নয়ন করে এবং নিরাপদ জীবনের সম্ভাবনা বৃদ্ধি করে।

জীবনের মান উন্নয়ন

শরীরচর্চা একটি ভাল জীবনযাপন করার মাধ্যম। এটি শারীরিক এবং মানসিক সমস্যার প্রতিরোধ করে এবং আপনাকে একটি সুস্থ জীবনের অভিজ্ঞতা দেয়।

শরীরচর্চার উপকারিতা

প্রাকৃতিক রোগ প্রতিরোধ

শরীরচর্চা একটি প্রাকৃতিক রোগ প্রতিরোধের পদক্ষেপ। এটি আপনার শারীরিক স্বাস্থ্যকে উন্নয়ন করে এবং আপনাকে শারীরিক অসুস্থতার জন্য সম্ভব রোগ দূরে রাখতে সাহায্য করে।

মানসিক স্বাস্থ্যের সমর্থন

শরীরচর্চা করা মানসিক স্বাস্থ্যকে সমর্থন করে। শারীরিক চর্চার মাধ্যমে আপনি অতিরিক্ত এনার্জি পেতে পারেন এবং মনস্থতা ও চিন্তামুক্ত থাকতে সক্ষম হন।

জীবনের মান উন্নয়ন

শরীরচর্চা করার মাধ্যমে আপনি জীবনের মান উন্নয়ন করতে পারেন। এটি আপনাকে স্বাস্থ্যকে উন্নয়ন করে এবং প্রতিদিনের কাজে আপনি অধিক কার্যকর হন।

জীবনের দিকগুলি উন্নয়ন

শরীরচর্চা করার মাধ্যমে আপনি জীবনের বিভিন্ন দিকগুলি উন্নয়ন করতে পারেন।

শারীরিক যোগাযোগের সুবিধা

শরীরচর্চা করা আপনার শারীরিক যোগাযোগের সুবিধা করে। এটি আপনাকে স্বাস্থ্যকে উন্নয়ন করে এবং শারীরিক প্রদর্শনের উন্নয়ন করে।

দৌড় করার ক্ষমতা উন্নয়ন

শরীরচর্চা করার মাধ্যমে আপনি দৌড় করার ক্ষমতা উন্নয়ন করতে পারেন। এটি আপনার মাংসপেশীক ক্ষমতা বৃদ্ধি করে এবং আপনার দৌড় করার ক্ষমতা বাড়ায়।

মেধা উচ্চ শিক্ষার সমর্থন

শরীরচর্চা করার মাধ্যমে আপনি মেধা ও উচ্চ শিক্ষার সমর্থন করতে পারেন। এটি আপনার মানসিক স্বাস্থ্যকে উন্নয়ন করে এবং আপনাকে শিক্ষার উপর উন্নয়ন করে।

মানসিক স্বাস্থ্যের উন্নয়ন

শরীরচর্চা করার মাধ্যমে আপনি মানসিক স্বাস্থ্যের উন্নয়ন করতে পারেন। এটি আপনাকে মনস্থতা ও চিন্তামুক্ত করে এবং আপনার মনকে শান্ত ও স্বাস্থ্যকে উন্নয়ন করে।

মানসিক সুস্থতার জন্য শারীরিক ব্যায়াম

নিয়মিত শারীরিক ক্রিয়াকলাপ শুধুমাত্র শরীরের উপকার করে না মানসিক স্বাস্থ্যের উপরও ইতিবাচক প্রভাব ফেলে। ব্যায়াম উদ্বেগ এবং হতাশার লক্ষণগুলি কমাতে, মেজাজ উন্নত করতে এবং জ্ঞানীয় কার্যকারিতা বাড়াতে দেখানো হয়েছে। এর কারণ হল শারীরিক ক্রিয়াকলাপ এন্ডোরফিন নিঃসরণকে উদ্দীপিত করে, যা ভালো অনুভূতি প্রদানকারী রাসায়নিক পদার্থ।

অধিকন্তু, ব্যায়াম মানসিক চাপ এবং উত্তেজনার জন্য একটি স্বাস্থ্যকর আউটলেট প্রদান করতে পারে। শারীরিক ক্রিয়াকলাপ শরীরে স্ট্রেস হরমোন কর্টিসলের মাত্রা কমাতে সাহায্য করতে পারে, যা সামগ্রিক মেজাজের উন্নতি এবং উদ্বেগ এবং বিষণ্নতার লক্ষণগুলি হ্রাস করতে পারে।

রোগ প্রতিরোধের জন্য শারীরিক ব্যায়াম

শারীরিক ব্যায়ামের আরেকটি উল্লেখযোগ্য সুবিধা হল এটি হৃদরোগ, স্ট্রোক এবং ডায়াবেটিসের মতো দীর্ঘস্থায়ী রোগ প্রতিরোধে সাহায্য করতে পারে। নিয়মিত শারীরিক ক্রিয়াকলাপ রক্তচাপ এবং কোলেস্টেরলের মাত্রা হ্রাস করে, স্বাস্থ্যকর রক্তে শর্করার মাত্রা প্রচার করে এবং স্থূলতার ঝুঁকি হ্রাস করে কার্ডিওভাসকুলার স্বাস্থ্যের উন্নতি করতে পারে।

উপরন্তু, শারীরিক ব্যায়াম স্তন এবং কোলন ক্যান্সার সহ নির্দিষ্ট ধরণের ক্যান্সার প্রতিরোধে সহায়তা করতে পারে। স্বাস্থ্যকর হাড় বজায় রাখতে, অস্টিওপরোসিসের ঝুঁকি কমাতে এবং বয়স্ক প্রাপ্তবয়স্কদের গতিশীলতা ও ভারসাম্যের উন্নতিতেও এটি অপরিহার্য।

ব্যায়ামের গুরুত্ব: আপনার শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্যের জন্য উপকারিতা 

ভূমিকা 

ব্যায়াম একটি স্বাস্থ্যকর জীবন পরিচালনার একটি অপরিহার্য দিক। এটি শুধু শারীরিক স্বাস্থ্যের জন্যই উপকারী নয়, এর রয়েছে অসংখ্য মানসিক স্বাস্থ্য উপকারিতা। নিয়মিত ব্যায়াম আপনাকে স্বাস্থ্যকর ওজন বজায় রাখতে, হার্টের স্বাস্থ্যের উন্নতি করতে এবং আপনার মেজাজকে উন্নত করতে সাহায্য করতে পারে। এই নিবন্ধে, আমরা ব্যায়ামের গুরুত্ব, এর উপকারিতা এবং এটি কীভাবে আপনাকে একটি স্বাস্থ্যকর জীবনযাপন করতে সহায়তা করতে পারে তা অন্বেষণ করব। 

শারীরিক ব্যায়াম রচনা 

শারীরিক ব্যায়াম হল কোন শারীরিক কার্যকলাপ যা শারীরিক সুস্থতা এবং সামগ্রিক স্বাস্থ্য এবং সুস্থতা বাড়ায় বা বজায় রাখে। এটি যেকোনো ধরনের কার্যকলাপ হতে পারে যা আপনার হৃদস্পন্দন বৃদ্ধি করে এবং আপনাকে শ্বাস-প্রশ্বাস কঠিন করে তোলে। শারীরিক ব্যায়ামের কিছু উদাহরণ হল জগিং, সাইক্লিং, সাঁতার এবং ভারোত্তোলন। 

একটি স্বাস্থ্যকর ওজন বজায় রাখা এবং হার্টের স্বাস্থ্যের উন্নতির জন্য শারীরিক ব্যায়াম অপরিহার্য। এটি হাড় এবং পেশীকে শক্তিশালী করে, যা আঘাতের ঝুঁকি কমাতে সাহায্য করে। নিয়মিত ব্যায়াম দীর্ঘস্থায়ী রোগ যেমন ডায়াবেটিস, হৃদরোগ এবং নির্দিষ্ট ধরনের ক্যান্সারের ঝুঁকি কমাতে পারে। 

ব্যায়াম এবং স্বাস্থ্যকর জীবন 

ব্যায়াম একটি স্বাস্থ্যকর জীবনধারার একটি অপরিহার্য উপাদান। নিয়মিত ব্যায়াম, একটি সুষম খাদ্য এবং পর্যাপ্ত ঘুম সহ, আপনাকে একটি স্বাস্থ্যকর জীবনযাপন করতে সাহায্য করতে পারে। ব্যায়াম আপনাকে স্বাস্থ্যকর ওজন বজায় রাখতে, দীর্ঘস্থায়ী রোগের ঝুঁকি কমাতে এবং আপনার সামগ্রিক শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্যের উন্নতি করতে সাহায্য করতে পারে। 

প্রতিদিনের শারীরিক ব্যায়াম 

একটি স্বাস্থ্যকর জীবনধারা বজায় রাখার জন্য দৈনিক শারীরিক ব্যায়াম অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এটি সুপারিশ করা হয় যে প্রাপ্তবয়স্করা প্রতি সপ্তাহে কমপক্ষে 150 মিনিটের মাঝারি-তীব্র ব্যায়াম বা প্রতি সপ্তাহে 75 মিনিটের জোরালো-তীব্র ব্যায়াম পান। এটি দ্রুত হাঁটা, সাইকেল চালানো বা সাঁতারের মতো কার্যকলাপের মাধ্যমে অর্জন করা যেতে পারে। 

আপনার দৈনন্দিন রুটিনের একটি অংশ ব্যায়াম করা আপনাকে অনুপ্রাণিত থাকতে এবং আপনার ফিটনেস লক্ষ্য অর্জনে সহায়তা করতে পারে। ছোট, অর্জনযোগ্য লক্ষ্য নির্ধারণ করে এবং ধীরে ধীরে আপনার ওয়ার্কআউটের তীব্রতা এবং সময়কাল বাড়িয়ে শুরু করুন। 

যোগ ব্যায়াম রচনা 

যোগব্যায়াম হল শারীরিক ব্যায়ামের একটি রূপ যা প্রাচীন ভারতে উদ্ভূত হয়েছিল। এটি সামগ্রিক স্বাস্থ্য এবং সুস্থতার প্রচারের জন্য শারীরিক ভঙ্গি, শ্বাস-প্রশ্বাসের ব্যায়াম এবং ধ্যানকে একত্রিত করে। যোগব্যায়াম চাপ এবং উদ্বেগ কমাতে, নমনীয়তা উন্নত করতে এবং পেশী শক্তিশালী করতে সাহায্য করতে পারে। 

যোগব্যায়াম হল একটি কম-প্রভাবিত ব্যায়াম যা সব বয়সের এবং ফিটনেস স্তরের মানুষের জন্য উপযুক্ত। এটি বাড়িতে বা ক্লাস সেটিংয়ে করা যেতে পারে, এটি ব্যায়ামের একটি সুবিধাজনক এবং অ্যাক্সেসযোগ্য ফর্ম তৈরি করে। 

ব্যায়াম নিয়ম 

    • যখন ব্যায়ামের কথা আসে, তখন আপনার ওয়ার্কআউট থেকে সর্বাধিক সুবিধা পাওয়ার জন্য কিছু নিয়ম মনে রাখতে হবে: 
    • ধীরে ধীরে শুরু করুন এবং ধীরে ধীরে আপনার ওয়ার্কআউটের তীব্রতা এবং সময়কাল বাড়ান। 
    • আঘাত এড়াতে ব্যায়াম করার আগে ওয়ার্ম আপ করুন। 
    • ব্যায়ামের আগে, চলাকালীন এবং পরে প্রচুর পানি পান করে হাইড্রেটেড থাকুন। 
    • আঘাত এড়াতে উপযুক্ত পোশাক এবং জুতা পরুন। 
    • আপনার শরীরের কথা শুনুন এবং প্রয়োজনে বিরতি নিন। 

উপসংহার

উপসংহারে, শারীরিক ব্যায়াম একটি স্বাস্থ্যকর জীবনধারার একটি অপরিহার্য দিক। শারীরিক সুস্থতা, মানসিক সুস্থতা এবং রোগ প্রতিরোধ সহ নিয়মিত ব্যায়ামের অসংখ্য উপকারিতা রয়েছে। শারীরিক ক্রিয়াকলাপে জড়িত হওয়ার জন্য ব্যয়বহুল সরঞ্জাম বা জিমের সদস্যতার প্রয়োজন হয় না। হাঁটা, জগিং, সাইকেল চালানো বা সাঁতারের মতো সাধারণ ক্রিয়াকলাপগুলি উল্লেখযোগ্য স্বাস্থ্য সুবিধা প্রদান করতে পারে। অতএব, সর্বোত্তম স্বাস্থ্য বজায় রাখার জন্য আমাদের দৈনন্দিন রুটিনে নিয়মিত শারীরিক কার্যকলাপ অন্তর্ভুক্ত করা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

ভাল শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্য বজায় রাখার জন্য ব্যায়াম অপরিহার্য। নিয়মিত ব্যায়াম আপনাকে স্বাস্থ্যকর ওজন বজায় রাখতে, হার্টের স্বাস্থ্যের উন্নতি করতে এবং দীর্ঘস্থায়ী রোগের ঝুঁকি কমাতে সাহায্য করতে পারে। এটি চাপ এবং উদ্বেগ কমাতে, মেজাজ বাড়াতে এবং জ্ঞানীয় কার্যকারিতা উন্নত করতে পারে। ব্যায়ামকে আপনার দৈনন্দিন রুটিনের একটি অংশ করুন এবং এর অফার করা অসংখ্য সুবিধা উপভোগ করুন। 

FAQs

সর্বোত্তম স্বাস্থ্যের জন্য কতটা শারীরিক ব্যায়াম সুপারিশ করা হয়?

আমেরিকান হার্ট অ্যাসোসিয়েশন প্রতি সপ্তাহে কমপক্ষে 150 মিনিট মাঝারি-তীব্রতার বায়বীয় ব্যায়াম বা 75 মিনিটের জোরালো-তীব্রতার অ্যারোবিক ব্যায়ামের পরামর্শ দেয়।

শারীরিক ব্যায়াম কি মস্তিষ্কের কার্যকারিতা উন্নত করতে পারে?

হ্যাঁ, শারীরিক ব্যায়াম স্মৃতিশক্তি, মনোযোগ এবং সমস্যা সমাধানের দক্ষতা সহ জ্ঞানীয় কার্যকারিতা উন্নত করতে দেখানো হয়েছে।

শারীরিক ব্যায়াম ওজন কমাতে সাহায্য করতে পারেন?

হ্যাঁ, স্বাস্থ্যকর খাবারের সাথে শারীরিক ব্যায়াম ক্যালোরি পোড়াতে এবং মেটাবলিজম বাড়িয়ে ওজন কমাতে সাহায্য করতে পারে।

শারীরিক ব্যায়াম করার জন্য কি জিমে যেতে হবে?

না, জিমে না গিয়ে শারীরিক ক্রিয়াকলাপে জড়িত হওয়ার বিভিন্ন উপায় রয়েছে, যেমন হাঁটা, জগিং, সাইকেল চালানো বা সাঁতার কাটা।

শারীরিক ব্যায়াম কি দীর্ঘস্থায়ী রোগের ঝুঁকি কমাতে সাহায্য করতে পারে?

হ্যাঁ, নিয়মিত শারীরিক পরিশ্রম হৃদরোগ, স্ট্রোক, ডায়াবেটিস এবং নির্দিষ্ট ধরনের ক্যান্সারের মতো দীর্ঘস্থায়ী রোগের ঝুঁকি কমাতে পারে।

ওজন কমানোর জন্য ব্যায়াম সেরা ধরনের কি কি?

ওজন কমানোর জন্য সর্বোত্তম ধরণের ব্যায়াম হল যেগুলি প্রচুর ক্যালোরি পোড়ায় এবং আপনার হৃদস্পন্দন বাড়ায়। কিছু উদাহরণের মধ্যে রয়েছে দৌড়ানো, সাইকেল চালানো, সাঁতার কাটা এবং উচ্চ-তীব্রতার ব্যবধান প্রশিক্ষণ (HIIT)। শক্তি প্রশিক্ষণ পেশী তৈরিতেও সাহায্য করতে পারে, যা আপনার বিপাক বাড়াতে পারে এবং আপনাকে আরও ক্যালোরি পোড়াতে সাহায্য করতে পারে। 

ভাল স্বাস্থ্য বজায় রাখার জন্য আমার কত ঘন ঘন ব্যায়াম করা উচিত?

সুস্বাস্থ্য বজায় রাখার জন্য, প্রাপ্তবয়স্কদের প্রতি সপ্তাহে কমপক্ষে 150 মিনিট মাঝারি-তীব্র ব্যায়াম বা প্রতি সপ্তাহে 75 মিনিটের জোরালো-তীব্র ব্যায়াম করার পরামর্শ দেওয়া হয়। এটিকে সারা সপ্তাহ জুড়ে ছোট সেশনে ভাগ করা যেতে পারে, যেমন সপ্তাহে পাঁচ দিন 30 মিনিটের ব্যায়াম। 

ব্যায়াম কি আমার মানসিক স্বাস্থ্যের উন্নতি করতে পারে?

হ্যাঁ, নিয়মিত ব্যায়ামের অনেক মানসিক স্বাস্থ্য উপকারিতা রয়েছে। ব্যায়াম মানসিক চাপ এবং উদ্বেগ কমাতে, মেজাজ বাড়াতে এবং জ্ঞানীয় কার্যকারিতা এবং স্মৃতিশক্তি উন্নত করতে সাহায্য করতে পারে। এটি বিষণ্নতার ঝুঁকি কমাতে এবং আত্মসম্মান উন্নত করতে পারে। 

ব্যায়াম করতে অনুপ্রাণিত থাকার সেরা উপায় কি কি?

ব্যায়াম করতে অনুপ্রাণিত থাকা চ্যালেঞ্জিং হতে পারে, বিশেষ করে যদি আপনি সবে শুরু করেন। অনুপ্রাণিত থাকার জন্য কিছু টিপসের মধ্যে রয়েছে অর্জনযোগ্য লক্ষ্য নির্ধারণ করা, একজন ব্যায়ামের বন্ধু খুঁজে পাওয়া, আপনার ওয়ার্কআউটে ভিন্নতা আনা এবং আপনার লক্ষ্য পূরণের জন্য নিজেকে পুরস্কৃত করা। 

আমার দীর্ঘস্থায়ী স্বাস্থ্যের অবস্থা থাকলে আমি কি এখনও ব্যায়াম করতে পারি?

আপনার যদি দীর্ঘস্থায়ী স্বাস্থ্য থাকে h শর্ত, একটি ব্যায়াম প্রোগ্রাম শুরু করার আগে আপনার ডাক্তারের সাথে কথা বলা গুরুত্বপূর্ণ। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে, ব্যায়াম দীর্ঘস্থায়ী স্বাস্থ্যের অবস্থা পরিচালনার জন্য উপকারী হতে পারে, তবে আপনার ব্যক্তিগত প্রয়োজন অনুসারে এটি সংশোধন করা প্রয়োজন হতে পারে। 

নতুন যারা ব্যায়াম শুরু করতে চান তাদের জন্য কিছু টিপস কি?

আপনি যদি একজন শিক্ষানবিস হন যিনি ব্যায়াম শুরু করতে চান তবে ধীরে ধীরে শুরু করা এবং ধীরে ধীরে আপনার ওয়ার্কআউটের তীব্রতা এবং সময়কাল বৃদ্ধি করা গুরুত্বপূর্ণ। আপনি যা উপভোগ করেন তা খুঁজে পেতে আপনি বিভিন্ন ধরণের ব্যায়াম চেষ্টা করতে পারেন। সংক্ষিপ্ত, অর্জনযোগ্য লক্ষ্যগুলি দিয়ে শুরু করা আপনাকে গতিবেগ তৈরি করতে এবং অনুপ্রাণিত থাকতে সাহায্য করতে পারে। 

সকালে বা সন্ধ্যায় ব্যায়াম করা ভাল?

এই প্রশ্নের কোন এক-আকার-ফিট-সমস্ত উত্তর নেই। কিছু লোক সকালে ব্যায়াম করতে পছন্দ করে কারণ এটি তাদের ডান পায়ে দিন শুরু করতে সহায়তা করে। অন্যরা দীর্ঘ দিন পরে শান্ত হওয়ার উপায় হিসাবে সন্ধ্যায় ব্যায়াম করতে পছন্দ করে। শেষ পর্যন্ত, ব্যায়াম করার সর্বোত্তম সময় হল সেই সময় যা আপনার এবং আপনার সময়সূচীর জন্য সেরা কাজ করে। 

যোগব্যায়াম কি পিঠের ব্যথায় সাহায্য করতে পারে?

হ্যাঁ, যোগব্যায়াম হতে পারে পিঠের ব্যথা উপশমের একটি কার্যকর উপায়। কিছু যোগব্যায়াম ভঙ্গি পিছনের পেশীগুলিকে প্রসারিত এবং শক্তিশালী করতে সাহায্য করতে পারে, যা ব্যথা এবং কঠোরতা কমাতে পারে। যাইহোক, কোনও নতুন ব্যায়াম প্রোগ্রাম শুরু করার আগে আপনার ডাক্তারের সাথে কথা বলা গুরুত্বপূর্ণ, বিশেষ করে যদি আপনার পিঠে ব্যথা বা আঘাতের ইতিহাস থাকে। 

ব্যায়ামের উপকারিতা দেখতে কতক্ষণ লাগে?

ব্যায়ামের সুবিধাগুলি দেখতে কতটা সময় লাগে তা ব্যক্তি এবং ব্যায়ামের ধরণের উপর নির্ভর করে পরিবর্তিত হতে পারে। সাধারণভাবে, বেশিরভাগ লোকেরা ব্যায়াম প্রোগ্রাম শুরু করার কয়েক সপ্তাহের মধ্যে কিছু সুবিধা দেখতে শুরু করতে পারে, যেমন উন্নত মেজাজ এবং শক্তির মাত্রা। অন্যান্য সুবিধা, যেমন ওজন হ্রাস এবং উন্নত কার্ডিওভাসকুলার স্বাস্থ্য, আরও বেশি সময় নিতে পারে। 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *